জাতীয় মহিলা সংস্থা মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গার্মেন্টস ও কারখানার নারী শ্রমিকদের সন্তানদের জন্য ডে-কেয়ার সেন্টার কর্মসুচি (২য় পর্যায়)

কর্মসূচির বাস্তবায়নকাল

 

:

জানুয়ারী ২০১৮ - ডিসেম্বর ২০২০।

অর্থ মন্ত্রণালয় কর্তৃক

অনুমোদনের তারিখ

 

:

১৬ জানুয়ারী ২০১৮।

প্রাক্কলিত ব্যয়

 

:

৮৮৯.৪২ লক্ষ টাকা।

বাস্তব লক্ষ্যমাত্রা

 

:

১৩৫০ জন শিশুকে দিবাকালীন সেবা প্রদান।

কর্মসূচির মূল উদ্দেশ্য

:

ক) গার্মেন্টস ও কারখানায় কর্মরত মহিলা শ্রমিকেরা দুঃশ্চিন্তা ও অসুবিধা হতে দুরে থেকে যাতে তাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করতে পারে সেজন্য তাদের কর্মস্থলের আশে-পাশে ডে-কেয়ার সেন্টার স্থাপন তাদের শিশুদের নিরাপদ পরিবেশে সযত্নে দেখা শোনার সুযোগ সৃষ্টি করা;

 

খ) গার্মেন্টস ও কারখানায় কর্মরত নারী শ্রমিকদের ১ থেকে ৬ বছর বয়সের সন্তানদের জন্য ১০টি দিবাযত্ন কেন্দ্র স্থাপন করা;

 

গ) শিশুদের সুস্থ শারীরিক ও মানসিক বিকাশের জন্য সুষম ও পুষ্টিকর খাদ্য সরবরাহ, স্বাস্থ্য সেবা পদ্রান, অক্ষরজ্ঞান দান, অভ্যন্তরীণ খেলাধুলা ও অন্যান্য বিনোদনমূলক কার্যক্রম গ্রহণ;

 

ঘ) অর্থনৈতিক কর্মকান্ডের মূলস্রোতধারায় পূর্ণ অংশগ্রহণের মাধ্যমে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করা।

 

কর্মসূচির আওতাভূক্ত

এলাকা

:

গাজীপুর জেলায় ২টি (টঙ্গী ও বাসন), কালীগঞ্জ উপজেলায় ১টি, নারায়নগঞ্জ জেলায় ১টি (সদর), চট্টগ্রাম জেলায় ৩টি (বহদ্দারহাট, হালিশহর ও অক্সিজেন মোড়), সাভার উপজেলায় ৩টি (ইপিজেড, কর্ণপাড়া উলাইল ও আশুলিয়া), মানিকগঞ্জ জেলায় ১টি (জাগির), ঢাকা জেলায় ২টি (শেওড়াপাড়া/মিরপুর ও বাড্ডা/রামপুরা), কুমিল্লা জেলায় ১টি (ইপিজেড) ও রূপগঞ্জ উপজেলায় ১টি (তারাবো) মোট ১৫টি স্থানে কর্মসূচি বাস্তবায়ন হয়ে আসছে।


Share with :

Facebook Facebook